নিলামে ভ্যান গগের পিস্তল !

ভ্যান উইলিয়াম গগ। রঙকেই অভিব্যক্তির মূল প্রতীক মনে করতেন যে চিত্রশিল্পী। তাকে চেনেন না এমন মানুষ কমই পাওয়া যাবে। ১৮৫৩ সালের ৩০ মার্চ হল্যান্ডে জন্ম নেয়া ভ্যান গগ ছিলেন খুবই আবেগপ্রবণ। ভুগেছেন আত্মবিশ্বাসের অভাবেও।

১৮৯০ সালে ২৭ জুলাই অভার্স-সার-ওইস গ্রামের একটি মাঠে গিয়ে নিজের বুকে গুলি করে আত্মহত্যা করেন ভ্যান গগ।  যদিও কেউ কেউ মনে করেন তিনি আত্মহত্যা করেননি।

প্রায় সাত দশক পর, ১৯৬৫ সালে ঐ গ্রামের কাছেই একটি পিস্তল খুঁজে পান এক কৃষক। এই গ্রামেই জীবনের শেষ দিনগুলো কাটিয়েছিলেন কিংবদন্তী চিত্রশিল্পী ভ্যান গগ। গবেষকরা বলছেন, আনুমানিক ৫০ থেকে ৮০ বছর ধরে মাটিতে পড়েছিল পিস্তলটি। ধারণা করা হয় এই পিস্তল দিয়েই আত্মহত্যা করেছিলেন তিনি, যদিও এর সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠে। ভ্যান গগের মৃতদেহ প্যারিসের উত্তরাঞ্চলে একটি গ্রামের ক্ষেত থেকে উদ্ধার করা হয়েছিল। লিফঁসু রিভলবারটিও সেখানেই পাওয়া যায় বলে দাবি শিল্প ঐতিহাসিকদের।

 বুধবার পিস্তলটি ১ লাখ ৮২ হাজার মার্কিন ডলারে নিলামে বিক্রি হয়েছে। যদিও প্যারিসের একটি নিলাম সংস্থার ধারণা ছিল, লিফঁসু রিভলবারটির দাম উঠবে ৬০ হাজার ইউরো বা ৬৭ হাজার মার্কিন ডলার।

তবে এই নিলামের সমালোচনা করেছে ভ্যান গগ ইনস্টিটিউট। কারণ অনেক আগে থেকেই তার আত্মহননে ব্যবহৃত বিবেচনায় আরেকটি রিভলবার রাখা আছে আমস্টারডামের ভ্যান গগ জাদুঘরে। এক বিবৃতিতে তারা জানায়, এই পিস্তলটির ভ্যান গগের মৃত্যুর সাথে কোন সম্পর্ক আছে এমন কোন প্রমাণ নেই। এই দুঃখজনক মৃত্যুর এভাবে বাণিজ্যিকীকরন না করে বরং আরও সম্মান দেয়া উচিৎ।